‘ব্রাজিল চুরি করে বিশ্বকাপ জিতেনি’ মেসিকে খোঁচা সিলভার

পেরুকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে কোপা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ব্রাজিল। এবারের কোপা আমেরিকা শিরোপার সবচেয়ে বড় দাবিদার ছিল ব্রাজিল। সেভাবে খেলেই টুর্নামেন্টের ফাইনালে নাম লিখিয়েছিল তারা। এ নিয়ে ল্যাতিন আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে নবমবার শিরোপা ঘরে তুললো ব্রাজিল। এ জয়ের নেপথ্য নায়ক গ্যাব্রিয়েল জেসুস। নিজে গোল করে এবং সতীর্থকে দিয়ে করিয়ে ২০০৭ সালের পর দলকে কোপা ট্রফি জেতালেন তিনি। যদিও আনন্দের দিনে বিষাদময় অভিজ্ঞতা হয়েছে তার। একপর্যায়ে লালকার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। কোপা আমেরিকার সেমি ফাইনাল থেকেই বিদায় নেয়ার পর মেসি বিষ্ফোরক মন্তব্য করেন ব্রাজিল, রেফারি ও কনেমবলের বিরুদ্ধে। ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচের পরই ব্রাজিলের সমালোচনা করেছিলেন তিনি। সমালোচনা করেছিলেন রেফারির। তিনি আয়োজক ব্রাজিল এবং ম্যাচের রেফারিদের দুর্নীতিপরায়ণ

হিসেবে অভিযুক্ত করেছেন। সমালোচনার তীরে বিদ্ধ করেছেন ল্যাটিন আমেরিকার ফুটবল কর্তৃপক্ষ কনমেবলকেও। তিনি ব্রাজিলকে সরাসরি অভিযু্ক্ত করে বলেছিলেন, ব্রাজিল চ্যাম্পিয়ন? কোনো সন্দেহ নেই। দুঃখজনকভাবে আমার মনে হয় ব্রাজিলকে চ্যাম্পিয়ন করার জন্য সবকিছু ঠিক করা আছে। আশা করি রেফারি এবং ভিএআরের সেখানে কিছুই করার থাকবে না। পেরু হয়ত প্রতিদ্বন্দ্বিতার চেষ্টা করবে, কিন্তু এটা তাদের জন্য খুবই কঠিন। মেসির এমন অভিযোগ নিয়ে তোলপাড় হচ্ছে চারদিকে। জবাব দিচ্ছেন খেলোয়াড়রাও। তবে খেলোয়াড়দের খোঁচাটা হচ্ছে অনেকটাই মেসিকে তিরষ্কার করেই। কেননা, ক্লাব বার্সালোনাতে তার এমন অনেক ম্যাচ রয়েছে যেখানে রেফারির পক্ষপাতমুলক সিদ্ধান্ত দেখা গিয়েছিল। তেমনই একটি ম্যাচ ছিল বার্সালোনার কামব্যাক করা ৬-১ গোলের ম্যাচটি। সেই ম্যাচে এই থিয়াগো সিলভার পিএসজির

বিপক্ষেই প্রথম লেগে ৪-০ গোলে হারার পর দ্বিতীয় লেগে ৬-১ গোলে জিতেছিল বার্সা। সেই ম্যাচে রেফারি নিয়ে যথেষ্ট বিতর্ক হয়েছিল। সেটা মেসিকে মনে করিয়ে দিয়ে সিলভা বলেন, “মেসি! যখন কেউ হারে, তখন সে চেষ্টা করে নিজের ওজন বাঁচাতে অন্যের উপর দোষ চাপিয়ে দিতে। এটা শোনা দু:খজনক।” এখানেই থামেনি থিয়াগো সিলভা। পরোক্ষ ভাবে বিশ্বকাপ ইস্যুতে মেসি এবং আর্জেন্টিনাকে আরও বড় একটি খোঁচা মেরে তিনি বলেন, “ব্রাজিল এমনি এমনি পাঁচ তারকা অর্জন করেনি (পাঁচ বিশ্বকাপ), কোনটাই চুরি করে অর্জন করেনি। এগুলো মাঠে খেলেই অর্জন করেছে।”

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *