‘আমার বউকে ফেরত চাই’

আমার বউকে ফেরত চাই’-এমন প্ল্যাকার্ড নিয়ে থানায় স্বামী। তার সঙ্গে যোগ দিয়েছেন তার পরিবারের সদস্যরা। যতক্ষণ না তার স্ত্রীকে ফেরত দেয়া হচ্ছে ততক্ষণ তিনি থানা ত্যাগ করবেন না। এতে বিপাকে পড়েছেন থানার পুলিশ সদস্যরা। এমন চিত্র লক্ষ্য করা গেল ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুর কোতোয়ালি থানায়। তারা অবস্থান নেন থানার মূল ফটকের সামনে। ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না কোনো পুলিশ কর্মীকে। এমনকি থানা থেকে বেরও হতে পারছেন না কেউ। পুলিশ জানায়, মেদিনীপুর শহরের ১ নম্বর ওয়ার্ড তোলাপাড়ার বাসিন্দা রাজা দাসের সঙ্গে চলতি মাসের ৫ তারিখ বিয়ে হয় প্রতিবেশী দোয়েল মণ্ডলের। দীর্ঘ ৮ বছরের সম্পর্ক। তারপরই সাতপাকে বাঁধা পড়ে এই যুগল। কিন্তু সপ্তাহ না ঘুরতেই দোয়েলের বাড়ির সদস্যরা মেয়েকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে গিয়ে অন্যত্র বিয়ে দিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। এরই প্রতিবাদে বউ ফেরতের দাবিতে প্ল্যাকার্ড হাতে থানার সামনে অবস্থান নিয়েছে রাজা দাস ও তার পরিবার। রাজার পরিবারের সদস্যরা জানান, ৫ জুলাই বাড়ি

থেকে পালিয়ে রাজা দাসের বাড়িতে আসেন প্রেমিকা দোয়েল মণ্ডল। এরপর মন্দিরেই বিয়ে হয় তাদের। তবে অভিযোগ, তার পরদিনই বাবার অসুস্থতার কথা বলে দোয়েলকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যায় তার পরিবার। তারপর থেকে আর স্বামী রাজা দাসের বাড়িতে ফেরেননি দোয়েল। স্ত্রী দোয়েলের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করতে দেয়া হয়নি রাজাকে। একপর্যায়ে ফেসবুকের মাধ্যমে রাজা জানতে পারেন স্ত্রী দোয়েলকে তার বাড়ির লোক অন্যত্র আবার বিয়ে দিয়েছে। এরপরই এই বিষয়ে পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ জানান রাজা। কিন্তু তাতেও কোনো সমাধান পাওয়া যায়নি। শেষে আজ কোতোয়ালি থানার সামনে বউ ফেরতের দাবিতে অবস্থান নিয়েছে রাজা দাস ও তার পরিবার।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *